Friday, December 9, 2022
Homeউইকিপিডিয়াআ স ম ফিরোজ - এর নামে মামলা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তি,

আ স ম ফিরোজ – এর নামে মামলা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তি,

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের নির্বাচিত হয়ে পটুয়াখালী 2 আসনের নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য আ স ম ফিরোজ এর বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেছেন পটুয়াখালী জেলার বাউফল থানা দেন একজন আওয়ামী লীগের নেতা।

আ স ম ফিরোজ

উক্ত মামলায় সাক্ষী হিসেবে রাখা হয়েছে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কোভিদ নানক বরিশাল ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক খান আলতাফ হোসেন বুলু বাউফল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সম্পাদক জসিম উদ্দিন ফরাজী সহ আরো ১০ জনকে।

আ স ম ফিরোজ মামলা

মামলার অভিযোগে বলা হয়, গত ৯ ডিসেম্বর ২০২১, শুক্রবার বেলা পৌনে ১২টার সময় বাউফল উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় অফিসে বসে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও সাবেক চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ নেতাকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান খুন হওয়ার পর বঙ্গবন্ধুর ছবিতে জুতা ঝাটা লাগিয়ে আনন্দ মিছিল করেছি। তাতেই কিছু হয়নি, আর বাউফল আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতাকর্মীরা যারা আমার বিরুদ্ধে কাজ করে তাদের ডজন খানেক খুন করলেও আমার (আ স ম ফিরোজ) কোনো ক্ষতি হবে না।

চোখের নিচে কালো দাগ দূর করার ক্রিম সরাসরি কিনতে ক্লিক করুন – এখনই কিনুন

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তি

ওই দিন বাদী সেখানে উপস্থিত থেকে এ কথা শুনে শিউরে ওঠেন এবং পরবর্তীতে তিনি ১৯৭৫ সালের সেই ঘটনা সম্পর্কিত তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করেন। এরপর গত ১২ ডিসেম্বর ২০২১ তারিখে বাউফল থানায় মামলা করতে গেলেও পুলিশ মামলা নেয়নি। এর পর মঙ্গলবার আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।

পটুয়াখালী 2 আসনের সাংসদ মাননীয় সংসদের হুইপ আ স ম ফিরোজ সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু তথ্য জেনে নেয়া যাক তো চলুন জেনে নেই।

আ স ম ফিরোজ জন্ম

আ.স.ম. ফিরোজ (জন্ম ১ জানুয়ারি ১৯৫৩) হলেন একজন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতিবিদ, সংসদ সদস্য ও ব্যবসায়ী। তিনি পটুয়াখালী-২ আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য ও ১০ম জাতীয় সংসদের চীফ হুইফ।[১] সংবিধান অনুযায়ী দশম জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর কাছে ৩ জানুয়ারী ২০১৯ তারিখে একাদশ সংসদের সংসদ সদস্য হিসেবে তিনি শপথবাক্য পাঠ করেন।

ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার ক্রিম সরাসরি কিনতে ক্লিক করুন-এখনই কিনুন

আ স ম ফিরোজ প্রাথমিক জীবন


আ.স.ম. ফিরোজ ১৯৫৩ সালের ১লা ফেব্রুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ইতিহাস বিষয়ে বরিশাল সরকারি বি.এম. কলেজ থেকে বি.এ. ড্রিগ্রি নেন। ১৯৭১ সালে ফিরোজ বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন। ছাত্র জীবন থেকেই তিনি রাজনীতির সাথে সক্রিয়ভাবে জড়িত ছিলেন।

আ স ম ফিরোজ কর্ম জীবন


ফিরোজ ১ম সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন ১৯৭৯ সালের সাধারণ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ এর প্রার্থী হিসাবে। ১৯৮৬ সালের নির্বাচনে তিনি পুনরায় স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে সংসদ সদস্য হন কিন্তু পরবর্তীতে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগে যোগ দেন।

পটুয়াখালী ২ আসন

আর্টিকেলটিতে আমরা আসম ফিরোজ সম্পর্কে নানান তথ্য ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহ করে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি তথ্যগুলো সম্পর্কে কোন প্রশ্ন জিজ্ঞাসা থাকলে সেটি অবশ্য কমেন্টে লিখে জানিয়ে দিতে পারেন

আরো পড়ুনঃ মাত্র৫ সপ্তাহে লম্বা হওয়ার ঔষধের নাম ওদাম  700 টাকা

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

x
error: Content is protected !!