Wednesday, August 17, 2022
HomeUncategorizedএজিথ্রোমাইসিন খাওয়ার নিয়ম

এজিথ্রোমাইসিন খাওয়ার নিয়ম

আজকের আর্টিকেলটিতে আমরা জানবো এজিথ্রোমাইসিন খাওয়ার নিয়ম সম্পর্কে ও বিস্তারিত আলোচনা করব। এছাড়াও আমরা আলোচনা করব এজিথ্রোমাইসিন কিসের ওষুধ ? এজিথ্রোমাইসিন 500 এর কাজ কি? এজিথ্রোমাইসিন 500 এর দাম কত? এজিথ্রোমাইসিন ডোজ? এজিথ্রোমাইসিন এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া? এজিথ্রোমাইসিন কোন রোগের ওষুধ ইত্যাদি সম্পর্কে আলোচনা করবো তো চলমান ধারা আর কথা না বাড়িয়ে আমরা আমাদের মূল আলোচনায় চলে যাই। এজিথ্রোমাইসিন খাওয়ার নিয়ম

এজিথ্রোমাইসিন খাওয়ার নিয়ম

আরো পড়ুনঃ টাইটান জেল পুরুষের লিঙ্গ ১ থেকে ৩ ইঞ্চি পর্যন্ত বড় ও মোটা করে।

সরাসরি অর্ডার করতে ফোন করুন- 01751358525
সরাসরি কিনতে ক্লিক করুন –এখনই কিনুন

অনলাইনে ছেলেদের ও মেয়েদের যাবতীয় পার্সোনাল ও গোপনীয় পণ্যসামগ্রী সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য কসমেটিক সামগ্রী দেশের সবচেয়ে কম দামে ক্রয় করতে ভিজিট করুন আমাদের ওয়েবসাইট Www.gazivai.com

এজিথ্রোমাইসিন খাওয়ার নিয়ম

এজিথ্রোমাইসিনক্যাপসুল এবং সাসপেনশন খাবার গ্রহণেরন অন্তত এক ঘন্টা পূর্বে অথবা দুই ঘন্টা পরে গ্রহণ করতে হবে। তবে এজিথ্রোমাইসিন ৫০০ ট্যাবলেট খাবার গ্রহণের পূর্বে অথবা পরে কিংবা খাবারের সাথে গ্রহণ করা যেতে পারে। এজিথ্রোমাইসিন সাসপেনশন তৈরীর জন্য ১০ মি.লি বা ২ চা চামচ পরিমাণ সদ্য ফুটানো ঠান্ডা পানি সবটুকু শুষ্ক পাউডারের সাথে ভালোভাবে মিশিয়ে নিতে হবে।

এজিথ্রোমাইসিন খাওয়ার নিয়ম

আরো পড়ুনঃ মোটা হওয়ার ইন্ডিয়ান গুড হেলথ কিনতে ক্লিক – এখনই কিনুন

বয়স্ক মাত্রা: শ্বাসতন্ত্রের সংক্রমণের জন্য সর্বমোট ১.৫ গ্রাম এজিথ্রোমাইসিন তিন দিনে সেবন করতে হয়। অর্থাৎ প্রতিদিন ৫০০ মি.গ্রা. এজিথ্রোমাইসিন পর পর তিন দিন খেতে হয়। বিকল্প মাত্রা হিসেবে প্রথম দিন ৫০০ মি.গ্রা. এবং পরবর্তী ৪ দিন প্রতিদিন ৩৫০ মি.গ্রা. করেও এজিথ্রোমাইসিন সেবন করা যেতে পারে।
ক্ল্যামাইডিয়া ট্র্যাকোম্যাটিস ঘটিত যৌনরোগের ক্ষেত্রে এজিথ্রোমাইসিন এর ১ গ্রাম একক মাত্রায় গ্রহণ করতে হয়। বিকল্প মাত্রা হিসেবে প্রথম দিন ৫০০ মি.গ্রা. এবং পরবর্তী দুইদিন ২৫০ মি.গ্রা. করে এজিথ্রোমাইসিন গ্রহণ করা যেতে পারে। বয়োবৃদ্ধ রোগীদের জন্য এজিথ্রোমাইসিন বয়স্ক মাত্রার সব পরিমাণ নির্দেশিত।
শিশুদের জন্য মাত্রা : ৬ মাস বা তার বেশি বয়সের শিশুদের জন্য এজিথ্রোমাইসিন প্রতিদিনে ১০ মি.গ্রা. প্রতিকেজি শরীর ওজন হিসেবে এবং পরবর্তী চারদিন ৫ মি.গ্রা. প্রতি কেজি শরীর ওজন হিসেবেও এজিথ্রোমাইসিন দেয়া যেতে পারে।
শরীরের ওজন ও বয়স অনুপাতে এজিথ্রোমাইসিন নিম্নলিখিত মাত্রায় দেয়া যেতে পারে-শরীর ওজন (বয়স) মাত্রা সেবনকাল

১৫-২৫ কেজি (৩-৭ বছর) ২০০ মি.গ্রা প্রতিদিন পরপর তিন দিন
২৬-৩৫ কেজি (৮-১১ বছর) ৩০০ মি.গ্রা. প্রতিদন পরপর তিনদিন
৩৬-৪৫ কেজি (১২-১৪ বছর) ৪০০ মি.গ্রা. প্রতিদিন পরপর তিন দিন
৪৫ কেজি এর বেশি শরীর ওজনের ক্ষেত্রে বয়স্ক মাত্রা প্রযোজ্য।

এজিথ্রোমাইসিন কিসের ঔষধ

এজিথ্রোমাইসিন একটি অ্যাজালাইড যা ম্যাক্রোলাইড এন্টিবায়োটিকের একটি উপশ্রেণি। এজিথ্রোমাইসিন কিছু নির্দিষ্ট ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণের চিকিৎসায় ও প্রতিকারে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মধ্য কর্ণের সংক্রমণ, স্ট্রেপ থ্রোট, নিউমেনিয়া, টাইফয়েড, ব্রংকাইটিস ও সাইনাসের প্রদাহ রোধে ব্যবহার করা হয়। এজিথ্রোমাইসিন ব্যাকটেরিয়ার প্রোটিন সংশ্লেষণকে বাধা দেয়ার মাধ্যমে ব্যাকটেরিয়াকে প্রতিরোধ করে। এটি (এজিথ্রোমাইসিন) ব্যাকটেরিয়ার রাইবোজোমের ৫০ং সাবইউনিটের সাথে যুক্ত হয়ে ব্যাকটেরিয়ার সজঘঅ এর ট্রান্সলেশন বন্ধ করে।

এজিথ্রোমাইসিন সংবেদনশীল জীবাণুঘটিত নিম্নলিখিত সংক্রমণে নির্দেশিত হয়ে থাকে-

শ্বাসতন্ত্রের নিম্নাংশের সংক্রমণ, যেমন- ব্রংকাইটিস এবং নিউমোনিয়া।
শ্বাসতন্ত্রের উর্ধ্বাংশের সংক্রমণ, যেমন- সাইনুসাইটিস , ফেরিনজাইটিস/টনসিলাইটিস, ওটাইটিস মিডিয়া।
ত্বক ও অন্যান্য নরম কলাসমূহের সংক্রমণ।
পুরুষ ও মহিলার নিম্নলিখিত যৌনরোগের চিকিৎসায় এজিথ্রোমাইসিন ব্যবহৃত হয়ে থাকে; নন-গনোকক্কাল ইউরেথ্রাইটিস, ক্লামাইডিয়া ট্র্যাকোম্যাটিস ঘটিত সারভিসাইটিস

এজিথ্রোমাইসিন ৫০০ এর কাজ কি

অ্যাজিথ্রোমাইসিন একটি অ্যান্টিবায়োটিক যা বিভিন্ন ধরণের ব্যাকটেরিয়া দ্বারা সৃষ্ট সংক্রমণের জন্য ব্যবহৃত হয়। এটা দিনে একবার গ্রহণ করতে হয়। মনে রাখবেন, এই ওষুধটি সাধারণ ঠান্ডা, ফ্লু বা ভাইরাস ঘটিত সংক্রমণের ক্ষেত্রে ব্যবহারের জন্য সুপারিশ করা হয় না কারণ এটি শুধুমাত্র ব্যাকটেরিয়া দ্বারা সংক্রমণের বিরুদ্ধে সক্রিয়। এটি ম্যাক্রোলাইড অ্যান্টিবায়োটিকগুলির একটি গোষ্ঠীর অন্তর্গত যা অনেকগুলি সংক্রমণের জন্য উপকারী, যেমন মধ্য কানের সংক্রমণ, ভ্রমণকারীর ডায়রিয়া ইত্যাদি। অন্যান্য ওষুধের সাথে এটি কখনও কখনও ম্যালেরিয়া নিরাময় করার জন্যও ব্যবহৃত হয়। এটি বিভিন্ন অন্ত্রের সংক্রমণ এবং সংক্রামিত যৌন সংক্রমণের জন্যও ব্যবহৃত হয়।

ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়াই এই ওষুধ গ্রহণ করা উচিত নয়।

অ্যাজিথ্রোমাইসিন সাধারণত দিনে একবার নেওয়া হয়। প্রতিদিন একই সময়ে আপনার ওষুধ খাওয়ার চেষ্টা করুন। সংক্রমণের চিকিত্সায় স্বাভাবিক ডোজ 3 থেকে 10 দিনের জন্য প্রতিদিন 500 মিলিগ্রাম। শিশুদের জন্য ডোজ কম হতে পারে অথবা যদি আপনার লিভার বা কিডনির সমস্যা থাকে।

এজিথ্রোমাইসিন ৫০০ দাম কত

আজকের আর্টিকেলটিতে আমরা এজিথ্রোমাইসিন সম্পর্কে কথা বলেছি এখন আমরা জানবো এজিথ্রোমাইসিন এর দাম। এজিথ্রোমাইসিন এর গ্রুপের অনেক ওষুধ দিয়ে সাধারণত পাওয়া যায় সাধারণত অনেক কোম্পানি এই ওষুধটি তৈরি করে থাকে তবে বেশিরভাগ কোম্পানি এই ওষুধটির দাম ধার্য করেছে 35 টাকা পিস । এছাড়াও বিভিন্ন কোম্পানি আছে যেগুলো 30 টাকা 28 টাকা 25 টাকা পিস বিক্রি করে থাকে তবে ভালো ভালো যে কোম্পানি গুলো আছে সেগুলো সাধারনত 35 টাকা পিস দাম নির্ধারণ করে বিক্রি করে থাকে

এজিথ্রোমাইসিন ডোজ

অ্যাজিথ্রোমাইসিন সাধারণত দিনে একবার নেওয়া হয়। প্রতিদিন একই সময়ে আপনার ওষুধ খাওয়ার চেষ্টা করুন। সংক্রমণের চিকিত্সায় স্বাভাবিক ডোজ 3 থেকে 10 দিনের জন্য প্রতিদিন 500 মিলিগ্রাম। শিশুদের জন্য ডোজ কম হতে পারে অথবা যদি আপনার লিভার বা কিডনির সমস্যা থাকে।

এজিথ্রোমাইসিন এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

ঔষধ খাওয়ার পর তন্দ্রা অনুভব, মাথা ঘোরা, হাইপোটেনশন বা মাথা ব্যাথার মত পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া অনুভব করেন তাহলে গাড়ী চালনা বা ভারী যন্ত্রপাতি চালানো নিরাপদ নয়।

এরিথ্রোমাইসিন কোন রোগের ঔষধ

অ্যাজিথ্রোমাইসিন (ইংরেজিতে: Azithromycin) একটি অ্যান্টিবায়োটিক শ্রেণীর থেরাপিউটিক ঔষধ। অ্যাজিথ্রোমাইসিন প্রথম ১৯৮০ খ্রিষ্টাব্দে তৈরি করা হয়েছিল। এটি ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ চিকিৎসার জন্য ব্যবহার হয়।

আরো পড়ুনঃ মেয়েদের ৩০,৩২,৩৪, সাইজের ব্রা সরাসরি কিনতে ক্লিক- এখনই কিনুন

আরো পড়ুনঃ মেয়েদের ৩০,৩২,৩৪, ফোম কাপ ব্রা সরাসরি কিনতে ক্লিক – এখনই কিনুন

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

Maral gel
Maral gel
x
error: Content is protected !!