Home Questions ঐকিক নিয়ম কাকে বলে জেনে নিন

ঐকিক নিয়ম কাকে বলে জেনে নিন

0
458
ঐকিক নিয়ম কাকে বলে
ঐকিক নিয়ম কাকে বলে

অনলাইন শপ www.Gazivai.com ( গাজী ভাই ডট কম) এর পক্ষ থেকে আজকের আর্টিকেলটিতে আমাদের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে ঐকিক নিয়ম আজকের এই আর্টিকেলে আমরা ঐকিক নিয়ম কি, ঐকিক নিয়ম কাকে বলে জেনে নিন এই বিষয় নিয়ে আলোচনা করব।

আমাদের এই আর্টিকেলে আজকের আলোচনার বিষয়বস্তু হলো ঐকিক নিয়ম কাকে বলে, ঐকিক নিয়ম এর কাজ কি, ঐকিক নিয়ম কাকে বলে in English, ঐকিক নিয়মের অংক, ঐকিক শব্দের অর্থ কি, ঐকিক নিয়ম পদ্ধতি, গণিত ঐকিক নিয়ম কাকে বলে, ঐকিক নিয়ম class 6, ঐকিক নিয়ম কাকে বলে class 5. ইত্যাদি বিষয় সম্পর্কে জানব।

আমাদের www.gazivai.com ওয়েবসাইট থেকে আপনার প্রয়োজনীয় সকল পণ্য কেনাকাটা করুন। সবথেকে কম দামে পণ্য কিনতে ভিজিট করুন www.gazivai.com

ঐকিক নিয়ম কাকে বলে

কোন কিছুর একক পরিমানের মূল্য,দাম ,ওজন, অন্য বৈশিষ্ট্য নির্ণয় করার পর তার সাথে তুলনা করে কাঙ্খিত পরিমানের মূল্য, ওজন বা বৈশিষ্ট্য নির্ণয় করার নিয়মই হলো ঐকিক নিয়ম।ঐকিক শব্দটি এসেছে একক শব্দ থেকে আর একক বলতে বুঝায় এক।প্রথমে একটির দাম বা একজনে করতে পারে সেটি বের করে সম্পূর্ণ অঙ্ক সমাধান করার পদ্ধতিকে ঐকিক নিয়ম বলে।

ঐকিক নিয়ম কাকে বলে

আরো পড়ুনঃ মোটা হওয়ার ইন্ডিয়ান গুড হেলথ কিনতে ক্লিক – এখনই কিনুন

প্রথমে একটির মান বের করে সমস্যা সমাধান করার পদ্ধতিকে ঐকিক নিয়ম বলে।অন্যভাবে বলা যায়, কতকগুলো জিনিসের দাম, ওজন, পরিমাণ ইত্যাদি থেকে প্রথমে একটি জিনিসের দাম, ওজন, পরিমাণ বের করে তা থেকে নির্দিষ্ট সংখ্যক একই জাতীয় জিনিসের দাম, ওজন, পরিমাণ নির্ণয় করার পদ্ধতিকে ঐকিক নিয়ম বলে।

ঐকিক নিয়ম এর কাজ কি

খুব ছোট বেলায় কমবেশি অনেকেই অংক সাবজেক্ট টা কে আমরা ভয় পেতাম। নানান সূত্র দিয়ে অংক করা এবং অংকের জটিলতা সমাধান করা এ যেনো মাথার মধ্যে আকাশ ভেঙ্গে পরার মত। আবার অনেকের কাছেই এই অংক বিষয়টিই ছিল সবচেয়ে মজার এবং প্রিয় সাবজেক্ট।

ঐকিক নিয়ম কাকে বলে

আরো পড়ুনঃ মেয়েদের স্তন – দুধ ছোট টাইট করার ক্রিম কিনতে ক্লিক –  এখনই কিনুন

তবে হ্যাঁ, অংক সাবজেক্টটা বোরিং এবং ভয়ের মনে হলেও এর ঐকিক নিয়ম এর অধ্যায় এবং অংক বরাররই আমার খুব ভালো লাগতো। এর কিছু নির্দিষ্ট সূত্র এর মাধ্যমে অংক গুলো সমাধান করা হতো বা হয়।

নির্দিষ্টসংখ্যক এক জাতীয় কতগুলো জিনিসের পরিমাণ বা দাম দেওয়া থাকলে অন্য কতগুলো ওই জাতীয় নির্দিষ্টসংখ্যক জিনিসের পরিমাণ বা দাম নির্ণয় করার জন্য প্রথমেই উল্লিখিত ওই সব জিনিসের একটির পরিমাণ বা দাম নির্ণয় করতে হয়। গণিত বিষয়ে হিসাব-নিকাশের এই নিয়মটির নাম ‘ঐকিক‘ নিয়ম

ঐকিক নিয়ম কাকে বলে in English

First, the unitary method captures the added wealth and value resulting from economic interdependencies.

(Football – contributions to the study of a unitary method of play, with applications to the C.

The unitary method is a technique for solving a problem by first finding the value of a single unit, and then finding the necessary value by multiplying.

প্রথমে একটির মান বের করে সমস্যা সমাধান করার পদ্ধতিকে ঐকিক নিয়ম বলে।অন্যভাবে বলা যায়, কতকগুলো জিনিসের দাম, ওজন, পরিমাণ ইত্যাদি থেকে প্রথমে একটি জিনিসের দাম, ওজন, পরিমাণ বের করে তা থেকে নির্দিষ্ট সংখ্যক একই জাতীয় জিনিসের দাম, ওজন, পরিমাণ নির্ণয় করার পদ্ধতিকে ঐকিক নিয়ম বলে।

ঐকিক নিয়মের অংক

ঐকিক নিয়মের সূত্র টি নিচের তিনটি ধাপে ভাগ করতে পারেন প্রথম ধাপ সমাধানের সময় প্রথম ধাপের প্রথম লাইন বা বাক্যটি এমনভাবে সাজাতে হবে যেন প্রশ্নে উল্লেখিত পরিমাণ দাম ইত্যাদির মধ্যে যে রাশিটি বের করতে হবে সেটি বাক্যবাণে শেষের দিকে থাকে।

আরও পড়ুন:  সানি লিওনের এক্সপ্রেস ভিডিও

আরও পড়ুন: চেহারা সুন্দর করার দোয়া

আরও পড়ুন: ভার্জিন মেয়ে চেনার উপায় ছবি সহ

আরও পড়ুন: মালয়েশিয়া টু বাংলাদেশ বিমান ভাড়া কত

আরও পড়ুন: সর্দির ট্যাবলেট ১০ টি ভালো ঔষধ

আরও পড়ুন: মাথা ব্যথার ১০ টি ঔষধের নামের তালিকা

আরও পড়ুন: বড় ভাইকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা ? বড় ভাইকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা স্ট্যাটাস

আরও পড়ুন: লিংগ মোটা করার উপায়

দ্বিতীয় ধাপঃ দ্বিতীয় ধাপে অবশ্যই স্পষ্ট ভাবে দেওয়া বামপাশে জিনিসটির পরিমাণ বা দামের সরাসরি সরাসরি নিচে এক লিখতে হয় এবং ডান পাশের সংখ্যাটি সরাসরি লিখে নিয়ে তার পরিমাণ বা দাম বেশি বলে গুণ চিহ্ন বসিয়ে

প্রথম লাইনের প্রথম রাশি লিখতে হয় আর কম বুঝলে ভাগ চিহ্ন বসিয়ে প্রথম রাশি লিখতে হয়। তৃতীয় লাইন বাধা পেজে নির্দিষ্ট সংখ্যক জিনিসের পরিমাণ বাদাম চাওয়া হয়েছে তা একের নিচে লিখে পদ্ধতি অনুসারে গুণ ভাগ এর কাজ করতে হয়।

ঐকিক শব্দের অর্থ কি

কোন কিছুর একক পরিমানের মূল্য, ওজন বা অন্য বৈশিষ্ট্য নির্ণয় করার পর তার সাথে তুলনা করে কাঙ্খিত পরিমানের মূল্য, ওজন বা বৈশিষ্ট্য নির্ণয় করার নিয়মই হলো ঐকিক নিয়ম

প্রশ্ন: ২০০ জন লোক যে খাদ্য ২০ দিন খেতে পারে, কতজন লোক সে খাদ্য ৪০ দিনে খেতে পারবে?সমাধান: ২০ দিন খেতে পারে ২০০ জন লোক১ ” ” ” (২০০x২০) জন লোক= ৪০০০ জন লোক৪০ ” ” ” (৪০০০÷৪০) জন লোক= ১০০ জন লোকউত্তর: ১০০ জন লোক।

প্রশ্ন: একটি ছাত্রাবাসে ১৬ জন ছাত্রের ২৫ দিনের খাদ্য আছে। কয়েকজন নতুন ছাত্র আসায় ২০ দিনে খাদ্য শেষ হয়ে গেল। নতুন ছাত্রের সংখ্যা কত?সমাধান: ২৫ দিনের খাদ্য আছে ১৬ জনের১ ” ” ” (১৬x২৫) জনের= ৪০০ জনের২০ ” ” ” (৪০০÷২০) জনের= ২০ জনেরসুতরাং নতুন ছাত্রের সংখ্যা হলো: (২০-১৬) জন= ৪ জনউত্তর: ৪ জন।

আরো পড়ুনঃ ওজন কমানোর  ইন্ডিয়ান ঔষধ কিনতে ক্লিক করুন – এখনই কিনুন

আরো পড়ুনঃ  লম্বা হওয়ার ঔষধ কিনতে ক্লিক- এখনই কিনুন

আর পড়ুনঃ পাছা বা নিতম্বের মেদ কমানোর ঔষধ কিনতে  – এখনই কিনুন

আরো পড়ুনঃ স্বামী স্ত্রীর মধুর মিলন দাম্পত্য জীবন বই কিনতে ক্লিক করুন – এখনই কিনুন

আরো পড়ুনঃ আরবি ভাষা শিক্ষার বই কিনতে ক্লিক করুন – এখনই কিনুন

আরো পড়ুনঃ পড়ুনঃ লিংগ মোটা বড় করার  ইন্ডিয়ান কস্তুরি গোল্ড কিনতে ক্লিক – এখনই কিনুন

আরো পড়ুনঃ ২০ মিনিট সেক্স করার ইন্ডিয়ান স্প্রে কিনতে ক্লিক – এখনই কিনুন

ঐকিক নিয়ম পদ্ধতি

প্রশ্ন: কোনো শিবিরে ১২০০ সৈন্যের ২০ দিনের খাদ্য আছে। ওই শিবির হতে ৪০০ সৈন্য চলে গেলে বাকি সৈন্যের ওই খাদ্য কত দিন চলবে?সমাধান: শিবিরে সৈন্য ছিল ১২০০ জনশিবির হতে সৈন্য চলে গেল ৪০০ জনশিবিরে সৈন্য বাকি থাকল ৮০০ জনএখন,ওই খাদ্যে ১২০০ সৈন্যের চলে ২৮ দিন” ” ১ ” ” (২৮x১২০০) দিন= ৩৩৬০০ দিন” ” ৮০০ ” ” (৩৩৬০০÷৮০০) দিন= ৪২ দিনসুতরাং বাকি সৈন্যের ওই খাদ্য ৪২ দিন চলবে। উত্তর: ৪২ দিন।

প্রশ্ন: কোনো ছাত্রাবাসে ৫০০ জন ছাত্রের ৫০ দিনের খাবার আছে। ১০ দিন পর ওই ছাত্রাবাসে আরও ৩০০ জন ছাত্র এল। বাকি খাদ্যে তাদের আর কতদিন চলবে?সমাধান: ১০ দিন পর:খাবার থাকে (৫০-১০) দিনের = ৪০ দিনেরছাত্র সংখ্যা হয় (৫০০+৩০০) জন = ৮০০ জনএখন,বাকি খাদ্যে ৫০০ জন ছাত্রের চলে ৪০ দিন” ” ১ ” ” ” (৪০x৫০০) দিন= ২০০০০ দিন” ” ৮০০ ” ” ” (২০০০০÷৮০০) দিন= ২৫ দিনসুতরাং বাকি খাদ্যে তাদের আর ২৫ দিন চলবে।উত্তর: ২৫ দিন।

ঐকিক নিয়ম class 6

প্রশ্ন: কোনো পরিবারে ৮ জন লোকের ২৬ দিনের খাদ্য আছে। ৫ দিন পর ১ জন লোক বাইরে চলে গেল। এখন বাড়ির লোকের অবশিষ্ট খাদ্যে আর কতদিন চলবে?সমাধান: ৫ দিন পরপরিবারে লোক থাকে (৮-১) জন = ৭ জনপরিবারে খাদ্য থাকে (২৬-৫) দিনের = ২১ দিনেরএখন,অবশিষ্ট খাদ্য ৮ জনের চলে ২১ দিন” ” ১ ” ” (২১x৮) দিন= ১৬৮ দিন” ” ৭ ” ” (১৬৮÷৭) দিন= ২৪ দিনসুতরাং বাড়ির লোকের অবশিষ্ট খাদ্যে আর ২০ দিন চলবে।উত্তর : ২৪ দিন

প্রশ্ন: একটি পুকুর খনন করতে ২০০ জন লোকের ২৫ দিন লাগে। পুকুরটি ২০ দিনে খনন করতে চাইলে অতিরিক্ত কতজন লোক নিয়োগ করা প্রয়োজন?সমাধান: ২৫ দিনে পুকুরটি খনন করতে পারে ২০০ জন লোক১ ” ” ” ” ” (২০০x২৫) জন লোক= ৫০০০ জন লোক২০ ” ” ” ” ” (৫০০০÷২০) জন লোক= ২৫০ জন লোকসুতরাং অতিরিক্ত লোক নিয়োগ করা প্রয়োজন (২৫০-২০০) জন= ৫০ জনউত্তর: ৫০ জন।

গণিত ঐকিক নিয়ম কাকে বলে

কতগুলো জিনিসের দাম, ওজন পরিমান দেওয়া থাকলে, প্রথমে একটির দাম, ওজন অথবা পরিমান বের করে তা থেকে নির্দিষ্ট সংখ্যাক একই জাতীয় জিনিসের মূল্য, ওজন, পরিমান নির্ণয় করার পদ্ধতিকে ঐকিক নিয়ম বলে।

মনে রাখবে,

  • প্রশ্নে যেটি চাওয়া হয় অর্থাৎ কত জন, মূল্য, দিন ইত্যাদি সেটি আমরা শেষে লিখবো। যেমন নিচে ১ নম্বর অংকে আমাদের দিন বের করতে হবে তাই আমরা দিন কথাটি শেষ অংশে লিখেছি।
  • যখন আমরা ১ জনে বা ১ দিনে করতে পারে লিখবো তখন লক্ষ্য রাখতে হবে যে ১ জনে বা ১ দিনে করতে সময় বেশি লাগবে নাকি কম লাগবে, যদি সময় বেশি লাগে তাহলে আমরা গুণ করবো আর যদি সময় কম লাগে তাহলে আমরা ভাগ করবো।

৩২ জন লোক একটি কাজ করতে পারে ২১ দিনে। ঐ কাজ ৪২ জন লোকে করতে কত দিনে লাগবে?

সমাধান

ঐকিক নিয়ম কাকে বলে

এখানে আমাদের গুণ এবং ভাগ করার পর হয় ১৬

সুতরাং ৪২ জন লোক যদি কাজটি করে তাহলে ১৬ দিন লাগবে।

ঐকিক নিয়ম কাকে বলে class 5

১। ঐকিক নিয়ম কী?উ:প্রথমে একটির দাম বের করে সমস্যার সমাধান করারপদ্ধতিকে ঐকিক নিয়ম বলে।২।ঐকিক নিয়মে সাধারণত যে জিনিসটি চাওয়া হয় সেটি কোথায়বসে?উ: বাক্যের শেষে।

আশা করছি আজকে আপনারা ঐকিক নিয়ম কি, ঐকিক নিয়ম কাকে বলে ,ঐকিক নিয়ম এর প্রকারভেদ সম্বন্ধে যথেষ্ট ধারণা অর্জন করেছেন। ঐকিক নিয়ম সম্বন্ধে আপনাদের কোন প্রশ্ন থাকলে নিচে কমেন্ট এর মাধ্যমে জানাতে পারেন ।আমাদের নেক্সট আর্টিকেলে আপনার প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করব ।

আমাদের আর্টিকেল বিষয়ে কারো কোন অভিযোগ বা পরামর্শ থাকলে তা নিচে কমেন্টে জানাতে পারেন আমরা আপনার কথা বিবেচনায় নিব।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

x
error: Content is protected !!