Thursday, August 11, 2022
HomeQuestionsত্রিভুজ কাকে বলে কত প্রকার কি কি

ত্রিভুজ কাকে বলে কত প্রকার কি কি

অনলাইন শপ www.Gazivai.com ( গাজী ভাই ডট কম) এর পক্ষ থেকে আজকের আর্টিকেলটিতে আমাদের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় হল ত্রিভুজ। আজকের এই আর্টিকেলে আমরা ত্রিভুজ কাকে বলে কত প্রকার ও কি কি এই বিষয় নিয়ে আলোচনা করব।

আমাদের এই আর্টিকেলে আজকের আলোচনার বিষয়বস্তু গুলো হল ত্রিভুজ কাকে বলে, ত্রিভুজ কাকে বলে কত প্রকার, ত্রিভুজ কাকে বলে কত প্রকার কি কি, ত্রিভুজ কাকে বলে সংজ্ঞা, ত্রিভুজ কাকে বলে চিত্র সহ,সমকোণী ত্রিভুজ কাকে বলে,স্থূলকোণী ত্রিভুজ কাকে বলে, সমবাহু ত্রিভুজ কাকে বলে,সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজ কাকে বলে ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা করব।

আমাদের www.gazivai.com ওয়েবসাইট থেকে আপনার প্রয়োজনীয় সকল পণ্য কেনাকাটা করুন। সবথেকে কম দামে পণ্য কিনতে ভিজিট করুন www.gazivai.com

ত্রিভুজ কাকে বলে

তিনটি রেখাংশ দ্বারা আবদ্ধ আকার বা আকৃতিকে ত্রিভুজ বলে। ত্রিভুজ গঠিত হওয়ার পর রেখাংশ তিনটির প্রত্যেকটিকে ত্রিভুজের বাহু বলে। আর এই ত্রিভুজ দ্বারা আবদ্ধ ক্ষেত্রকে ত্রিভুজক্ষেত্র বলে।

ত্রিভুজ কাকে বলে

আরো পড়ুনঃ মোটা হওয়ার ইন্ডিয়ান গুড হেলথ কিনতে ক্লিক – এখনই কিনুন

ইউক্লিডিও জ্যামিতি অনুযায়ী, একই সরলরেখায় অবস্থিত নয় এমন তিনটি বিন্দু দ্বারা একটি ও কেবল একটি ত্রিভুজ অঙ্কন করা যায়। অন্যভাবে বললে, যে বহুভুজের কেবল তিনটি বাহু ও তিনটি শীর্ষবিন্দু থাকে তাকে ত্রিভুজ বলে। ত্রিভুজের শীর্ষবিন্দু বলতে বোঝায়, এর যেকোনো দুইটি বাহু পরস্পর যে বিন্দুতে মিলিত হয়।

আবার বাহুর সংখ্যা বিবেচনায়, ত্রিভুজই সর্বনিম্ন বহুভুজ অর্থাৎ, এমন কোনো বহুভুজ নেই যার বাহুর সংখ্যা তিন এর কম। ত্রিভুজের তিন কোণের সমষ্টি দুই সমকোণ বা ১৮০°।

আরো পড়ুনঃ চুল কাটার মেশিন সরাসরি কিনতে ক্লিক – এখনই কিনুন

আরো পড়ুনঃ ২০ মিনিট সেক্স করার মেজিক কনডম কিনতে ক্লিক করুন – এখনই কিনুন

আরো পড়ুনঃ লিংগ মোটা বড় করার মারাল জেল কিনতে ক্লিক – এখনই কিনুন

আরো পড়ুনঃ মেয়েদের মিস মি ট্যাবলেট কিনতে ক্লিক- এখনই কিনুন

আরো পড়ুনঃ মেয়েদের স্তন – দুধ ছোট টাইট করার ক্রিম কিনতে ক্লিক –  এখনই কিনুন

আরো পড়ুনঃ মেয়েদের স্তন – দুধ বড় টাইট করার ক্রিম কিনতে ক্লিক – এখনই কিনুন

আরো পড়ুনঃ মেয়েদের যোনি টাইট করার ক্রিম কিনতে ক্লিক – এখনই কিনুন

আরো পড়ুনঃ গোপনাঙ্গ ফর্সা করার ক্রিম কিনতে ক্লিক – এখনই কিনুন

আরো পড়ুনঃ ওজন কমানোর  ইন্ডিয়ান ঔষধ কিনতে ক্লিক করুন – এখনই কিনুন

আরো পড়ুনঃ  লম্বা হওয়ার ঔষধ কিনতে ক্লিক- এখনই কিনুন

আর পড়ুনঃ পাছা বা নিতম্বের মেদ কমানোর ঔষধ কিনতে  – এখনই কিনুন

ত্রিভুজ কাকে বলে কত প্রকার

ত্রিভুজ কত প্রকার তা সুনির্দিষ্ট করা একটু কঠিন হলেও বাহু অনুসারে ত্রিভুজের প্রকারভেদ, কোণ অনুসারে ত্রিভুজের প্রকারভেদ এবং ত্রিভুজের অন্যান্য বৈশিষ্ট্য বিবেচনা করে সাধারণত যে কয়টি ত্রিভুজ পাওয়া তার একটি তালিকা নিচে দেওয়া হলো।

ত্রিভুজ কাকে বলে

আরো পড়ুনঃ ৩ পাট কুচি বোরকা সরাসরি কিনতে ক্লিক করুন – এখনই কিনুন

  • বিষমবাহু ত্রিভুজ
  • সমদ্বিবাহু ত্রিভুজ
  • সমবাহু ত্রিভুজ
  • সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজ
  • স্থূলকোণী ত্রিভুজ
  • সমকোণী ত্রিভুজ
  • বিষমবাহু সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজ
  • বিষমবাহু স্থূলকোণী ত্রিভুজ
  • বিষমবাহু সমকোণী ত্রিভুজ
  • সমদ্বিবাহু সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজ
  • সমদ্বিবাহু স্থূলকোণী ত্রিভুজ
  • সমদ্বিবাহু সমকোণী ত্রিভুজ
  • তির্যক ত্রিভুজ
  • সদৃশকোণী ত্রিভুজ
  • সর্বসম ত্রিভুজ
  • বৃত্তে অন্তর্লিখিত ত্রিভুজ

ত্রিভুজ কাকে বলে কত প্রকার কি কি

বিষমবাহু ত্রিভুজ: ত্রিভুজের তিনটি বাহু পরস্পর অসমান হলে তাকে বিষমবাহু ত্রিভুজ বলে। এই ত্রিভুজের বাহু তিনটি পরস্পর সমান নয় বলে, এর কোণ তিনটিও পরস্পর অসমান।বিষমবাহু ত্রিভুজ হলো সকল ত্রিভুজের সাধারণ রূপ।

অর্থাৎ বিষমবাহু ত্রিভুজের কোনো কোনো বৈশিষ্ট্যের কারণে অন্যান্য ত্রিভুজ উৎপন্ন হয়। যেমন বিষমবাহু ত্রিভুজের দুইটি বাহু পরস্পর সমান হলে তখন সেটি সমদ্বিবাহু ত্রিভুজ হয়ে যায়। একইভাবে, বিষমবাহু ত্রিভুজের তিনটি বাহু পরস্পর সমান হলে তাকে সমবাহু ত্রিভুজ বলে।

আরও পড়ুন:  সানি লিওনের এক্সপ্রেস ভিডিও

আরও পড়ুন: চেহারা সুন্দর করার দোয়া

আরও পড়ুন: ভার্জিন মেয়ে চেনার উপায় ছবি সহ

আরও পড়ুন: মালয়েশিয়া টু বাংলাদেশ বিমান ভাড়া কত

আরও পড়ুন: সর্দির ট্যাবলেট ১০ টি ভালো ঔষধ

আরও পড়ুন: মাথা ব্যথার ১০ টি ঔষধের নামের তালিকা

আরও পড়ুন: বড় ভাইকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা ? বড় ভাইকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা স্ট্যাটাস

আরও পড়ুন: লিংগ মোটা করার উপায়

সমদ্বিবাহু ত্রিভুজ :ত্রিভুজের দুইটি বাহু পরস্পর সমান হলে তাকে সমদ্বিবাহু ত্রিভুজ বলে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে বলা হয়, যে ত্রিভুজের কেবল দুইটি বাহু সমান তাকে সমদ্বিবাহু ত্রিভুজ বলে। আবার, কোনো কোনো ক্ষেত্রে বলা হয়, যে ত্রিভুজের কমপক্ষে দুইটি বাহু পরস্পর সমান, তাই সমদ্বিবাহু ত্রিভুজ। এক্ষেত্রে, সকল সমবাহু ত্রিভুজকে সমদ্বিবাহু ত্রিভুজ বলা যায়।

অন্যভাবে বলা যায়, যে ত্রিভুজের দুইটি কোণ পরস্পর সমান তাকে সমদ্বিবাহু ত্রিভুজ বলে। সমদ্বিবাহু ত্রিভুজের যেকোনো একটি কোণের মান জানা থাকলে অপর কোণ দুইটির পরিমাপ নির্ণয় করা যায়।

ত্রিভুজ কাকে বলে সংজ্ঞা

সমবাহু ত্রিভুজ :

ত্রিভুজের তিনটি বাহুর দৈর্ঘ্য পরস্পর সমান হলে তাকে সমবাহু ত্রিভুজ বলে। এটি একটি সুষম ত্রিভুজ কারণ এর বাহু তিনটির দৈর্ঘ্য পরস্পর সমান। আবার, এর বাহু তিনটির দৈর্ঘ্য সমান বলে কোণ তিনটিও পরস্পর সমান।

অন্যভাবে বললে, যে ত্রিভুজের কোণ তিনটি পরস্পর সমান তাকে সমবাহু ত্রিভুজ বলে। ত্রিভুজের তিনকোণের সমষ্টি ১৮০°। ফলে কোণগুলো পরস্পর সমান হলে, এর প্রত্যেকটি কোণের পরিমাপ ৬০° হয়। তাই সমবাহু ত্রিভুজের প্রত্যেকটি কোণের পরিমাপ ৬০°।

অতএব বলা যায়, যে ত্রিভুজের প্রত্যেকটি কোণের পরিমাপ ৬০° তাকে সমবাহু ত্রিভুজ বলে। তাছাড়া, সমবাহু ত্রিভুজ একটি সুষম বহুভুজ যার বাহুর সংখ্যা তিন। সুষম বহুভুজ হওয়ার কারণ হলো এই বহুভুজের বাহু তিনটি পরস্পর সমান।

সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজ :

ত্রিভুজের তিনটি কোণের প্রত্যেকটি সূক্ষ্মকোণ হলে তাকে সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজ বলে। সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজের বাহুত্রয় পরস্পর সমান হতে পারে; আবার বাহুত্রয় অসমানও হতে পারে। তবে, বাহু তিনটির দৈর্ঘ্য পরস্পর সমান হলে তখন এটি সমবাহু ত্রিভুজ হয়ে যায়।

সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজের দুইটি কোণ পরস্পর সমান হলে তখন সেইটি সমদ্বিবাহু ত্রিভুজ হয়ে যায়। একটি সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজের তিনটি অন্তর্লিখিত বর্গক্ষেত্র আঁকা যায় যেখানে প্রতিটি বর্গক্ষেত্রের একটি বাহু ত্রিভুজের একটি বাহুর অংশ হয় এবং বর্গক্ষেত্রের অপর দুইটি শীর্ষবিন্দু ত্রিভুজের অপর দুই বাহুর উপর অবস্থিত।

ত্রিভুজ কাকে বলে চিত্র সহ

স্থূলকোণী ত্রিভুজ :ত্রিভুজের একটি কোণ স্থূলকোণ হলে তাকে স্থূলকোণী ত্রিভুজ বলে। একটি স্থূলকোণী ত্রিভুজের কেবল একটি স্থূলকোণ থাকতে পারে।এই ত্রিভুজের স্থূলকোণ ব্যতীত অপর কোণ দুইটির প্রত্যেকটি সূক্ষ্মকোণ।

আবার এই ত্রিভুজের স্থূলকোণের বিপরীত বাহুই বৃহত্তম বাহু। তাছাড়া, ত্রিভুজের তিন কোণের যোগফল ১৮০° বলে একটি স্থূলকোণী ত্রিভুজের স্থূলকোণ ছাড়া অপর দুইটি সূক্ষ্মকোণদ্বয়ের সমষ্টি এক সমকোণ অপেক্ষা কম।

সমকোণী ত্রিভুজ :

ত্রিভুজের একটি কোণ সমকোণ হলে তাকে সমকোণী ত্রিভুজ বলে। ১ সমকোণ = ৯০°। সুতরাং, যে ত্রিভুজের একটি কোণের পরিমাপ ৯০° তাই সমকোণী ত্রিভুজ।

সমকোণী ত্রিভুজের সমকোণের বিপরীত বাহুকে অতিভুজ বলে এবং অতিভুজই সমকোণী ত্রিভুজের বৃহত্তম বাহু। এই ত্রিভুজের সমকোণ ব্যতীত অপর কোণ দুইটি পরস্পর পূরক কোণ কারণ এই কোণ দুইটির সমষ্টি ৯০°।

সমকোণী ত্রিভুজের উপর ভিত্তি করে পিথাগোরাসের উপপাদ্য গড়ে উঠেছে। এই ত্রিভুজের দুইটি বাহু পরস্পর সমান হলে তাকে সমদ্বিবাহু সমকোণী ত্রিভুজ বলে। তাছাড়া, সমকোণী ত্রিভুজের সমকোণ সংলগ্ন বাহু দুইটিকে লম্ব ও ভূমি বলে।

সমকোণী ত্রিভুজ কাকে বলে

সমকোণী ত্রিভুজ বলতে এমন একটি ত্রিভুজকে বোঝায় যার যেকোনো একটি কোণ সমকোণ বা ৯০°। অর্থাৎ যে ত্রিভুজের একটি কোণ সমকোণ 90 ডিগ্রী এবং অন্য দুটি কোণের সমষ্টি এক সমকোণ বা 90 ডিগ্রি হলে তাকে সমকোণী ত্রিভুজ বলে। সমকোণী ত্রিভুজের বাহু এবং কোণগুলির মধ্যকার সম্পর্ক ত্রিকোণমিতি নামক উপশাস্ত্রের মূল আলোচ্য বিষয়।

সমকোণী ত্রিভুজের সমকোণটির বিপরীতে অবস্থিত বাহুটিকে অতিভুজ বলে (চিত্রে c বাহুটি)। সমকোণ গঠনকারী বাহুদ্বয়কে বলা হয় পাদ বা ভূমি এবং উচ্চতা বলা হয়।সমকোণী ত্রিভুজের পরিসীমা=(লম্ব+ভূমি+অতিভুজ)

যদি কোন সমকোণী এিভুজের বাহুর সবগুলির দৈর্ঘ্য পূর্ণসংখ্যায় প্রকাশ করা যায়, তবে ত্রিভুজটিকে পিথাগোরীয় ত্রিভুজ বলা হয় এবং দৈর্ঘ্য তিনটিকে পিথাগোরীয় ত্রয়ী বলা হয়।

স্থূলকোণী ত্রিভুজ কাকে বলে

যে ত্রিভুজের একটি কোণ স্থুলকোণ তাকে স্থুলকোণী ত্রিভুজ বলে।যেহেতু যে কোন ত্রিভুজের বা স্থুলকোণী ত্রিভুজের তিন কোণের সমষ্টি ১৮০, তাই কোন ত্রিভুজের বা স্থুলকোণী ত্রিভুজের একটির বেশি স্থুলকোণ থাকতে পারে না।

সুতরাং, কোন স্থুলকোণী ত্রিভুজের স্থুলকোণ ব্যতীত অপর দুইটি কোণ অবশ্যই সূক্ষ্মকোণ।আবার, স্থুলকোণী ত্রিভুজের স্থুলকোণের বিপরীত বাহুটি তার অপর দুই বাহুর প্রত্যকটি অপেক্ষা বৃহত্তম।কোণ অনুসারে যে কয় ধরণের ত্রিভুজ আছে স্থুলকোণী ত্রিভুজ হলো তাদের মধ্যে অন্যতম একটি।

সমবাহু ত্রিভুজ কাকে বলে

সমবাহু ত্রিভুজ – যার তিনটি বাহুরই দৈর্ঘ্য সমান তাকে সমবাহু ত্রিভুজ বলে। বৈশিষ্ট1. প্রতিটি কোণের মান ৬০° 2.তিনটি কোন সমান । 3.তিনটি কোন সুক্ষকোনী। 4.তিনটি কোনের সমষ্টি 3•একটি কোন 5.পরিধি 3•একটি বাহুযে ত্রিভুজের সবগুলো বাহুর দৈর্ঘ্য পরস্পর সমান তাকে সমবাহু ত্রিভুজ বলে

অন্যভাবে বলা যায় ত্রিভুজের কোণগুলোর পরিমাপ পরস্পর সমান হলে তাকে সমবাহু ত্রিভুজ বলে।যে ত্রিভুজের প্রত্যেকটি কোণের মান ৬০ তাকে সমবাহু ত্রিভুজ বলে।যেহেতু ত্রিভুজের তিন কোণের সমষ্টি ১৮০ এবং প্রত্যেকটি কোণের মান সমান, তাই এই ত্রিভুজের প্রত্যেকটি কোণের মান ৬০। এটি তিন বাহুবিশিষ্ট একটি সুষম বহুভুজ। সুতরাং, এটি একটি সুষম ত্রিভুজ

সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজ কাকে বলে

সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজ: যে ত্রিভুজের তিনটি কোনই সূক্ষ্মকোণ অর্থাৎ ৯০ ডিগ্রি থেকে ছোট তাকে সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজ বলে।যে ত্রিভুজের তিনটি কোণই সূক্ষ্মকোণ তাকে সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজ বলে।সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজের যে কোন দুইটি কোণের সমষ্টি সবসময়ই ৯০ এর চেয়ে বেশি।

সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজের বাহুগুলো সমানও হতে পারে, আবার অসমানও হতে পারে।সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজের শীর্ষত্রয় থেকে বিপরীত বাহুগুলোর উপর লম্ব অঙ্কণ করলে, লম্বত্রয়ের ছেদবিন্দু সবসময়ই ত্রিভুজের অভ্যন্তরে অবস্থিত।

কোণের ভিত্তিতে যে কয় ধরণের ত্রিভুজ আছে, তাদের মধ্যে একটি হলো সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজ।সূক্ষ্মকোণী ত্রিভুজের ভরকেন্দ্র, অন্তকেন্দ্র, পরিকেন্দ্র ও লম্বকেন্দ্র সবই ত্রিভুজের অভ্যন্তরে অবস্থিত।

আমাদের আর্টিকেল বিষয়ে কারো কোন অভিযোগ বা পরামর্শ থাকলে তা নিচে কমেন্টে জানাতে পারেন আমরা আপনার কথা বিবেচনায় নিব।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

Maral gel
Maral gel
x
error: Content is protected !!