বার্ধক্য জনিত রোগ কি

550.00৳ 

সরাসরি কিনতে ফোন করুন: 01622913639

♣ ঢাকার বাহিরে থেকে অর্ডার করতে চাইলে ১৫০ টাকা অগ্রিম ডেলিভারি পরিশোধ করুন ।

ব্যবহারের সুবিধা;
১, আপনার লিঙ্গ মোটা এবং বড় করবে।
৩, পূর্বের তুলনায় সময় বাড়াবে এবং সময় দীর্ঘায়িত করবে।
৪, আগের থেকে বেশি সময় স্ত্রী সহবাস করতে পারবেন।
৫, স্ত্রীকে দ্রুত আনন্দ দেওয়া যায় এবং স্ত্রীর অর্গাজম করা সম্ভব।
৬, মেয়েরা পরিপূর্ণ যৌন তৃপ্তি লাভ  লাভ করবে।

742 in stock

SKU: (19) মেয়েদের দুধ বড় করার ঔষধ Category: Tags: ,

Description

বার্ধক্য জনিত রোগ কি । বার্ধক্যজনিত রোগ হল এমন রোগ যা বয়সের সাথে সাথে বিকাশের সম্ভাবনা বেশি। কিছু সাধারণ বার্ধক্যজনিত রোগের মধ্যে রয়েছে:

বার্ধক্য জনিত রোগ কি

  • হৃদরোগ: হৃদরোগ হল মৃত্যুর একটি প্রধান কারণ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। এটি ধমনীতে প্লাক জমা হওয়ার কারণে হতে পারে, যা হৃৎপিণ্ডে রক্ত ​​প্রবাহকে সংকুচিত করতে পারে।
  • স্ট্রোক: একটি স্ট্রোক ঘটে যখন মস্তিষ্কের রক্ত ​​​​সরবরাহ ব্যাহত হয়। এটি একটি রক্তনালী ফেটে যাওয়ার বা রক্তনালীতে রক্ত ​​​​জমাট বাঁধার কারণে হতে পারে।

পড়ুনঃ মোটা হওয়ার ইন্ডিয়ান গুড হেলথ কিনতে এখনই ক্লিক করুন

  • ক্যান্সার: ক্যান্সার হল এক ধরনের রোগ যেখানে কোষগুলি অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি এবং বিভাজিত হতে শুরু করে। এটি শরীরের যে কোনও অংশে হতে পারে।
  • আলঝেইমার রোগ: আলঝেইমার রোগ হল একটি মস্তিষ্কের রোগ যা স্মৃতিশক্তি হ্রাস এবং অন্যান্য জ্ঞানীয় ক্রিয়াকলাপের কারণ হয়। এটি মৃত্যুর একটি প্রধান কারণ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বয়স্কদের মধ্যে।
  • মধুমেহ: মধুমেহ হল এমন একটি রোগ যেখানে শরীর সঠিকভাবে ইনসুলিন তৈরি বা ব্যবহার করে না। এটি উচ্চ রক্তে শর্করার মাত্রা হতে পারে, যা বিভিন্ন স্বাস্থ্য সমস্যার দিকে নিয়ে যেতে পারে।
  • অস্টিওপরোসিস: অস্টিওপরোসিস হল এক ধরনের হাড়ের রোগ যা হাড়কে দুর্বল এবং ভেঙে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি করে তোলে। এটি মহিলাদের মধ্যে বেশি দেখা যায়, তবে এটি পুরুষদেরও প্রভাবিত করতে পারে।
  • আর্থারাইটিস: আর্থারাইটিস হল জয়েন্টগুলিকে প্রভাবিত করে এমন একটি শব্দ। এটি ব্যথা, শক্ততা এবং প্রদাহের কারণ হতে পারে।
  • ম্যাকুলার ডিজেনারেশন: ম্যাকুলার ডিজেনারেশন হল একটি চোখের রোগ যা কেন্দ্রীয় দৃষ্টি হ্রাস করে। এটি বয়স্কদের মধ্যে দেখা দেয় এমন অন্ধত্বের একটি প্রধান কারণ।

এগুলি বার্ধক্যজনিত রোগের মাত্র কয়েকটি উদাহরণ। স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন করা গুরুত্বপূর্ণ, নিয়মিতভাবে আপনার ডাক্তারের সাথে পরীক্ষা করা এবং আপনার বয়সের সাথে সাথে যেকোনো স্বাস্থ্য সমস্যা সম্পর্কে সচেতন থাকা।

বার্ধক্য জনিত রোগ

এটি হল এমন রোগ যা বয়সের সাথে সাথে বিকাশের সম্ভাবনা বেশি। বেশিরভাগ রোগ দীর্ঘস্থায়ী, অর্থাৎ সেগুলি দীর্ঘ সময় ধরে থাকে এবং এর কোনও নিরাময় নেই। কিছু সাধারণ বার্ধক্য জনিত রোগের মধ্যে রয়েছে:

  • হৃদরোগ হল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যুর প্রধান কারণ। বয়সের সাথে সাথে হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ে।
  • স্ট্রোক হল মস্তিষ্কের রক্তনালীতে বাধা বা ফাটলের কারণে মস্তিষ্কের ক্ষতি। বয়সের সাথে সাথে স্ট্রোকের ঝুঁকিও বেড়ে যায়।
  • ক্যান্সার হল এমন একটি রোগ যেখানে কোষগুলি অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি এবং নিয়ন্ত্রণের বাইরে ছড়িয়ে পড়ে। বয়সের সাথে সাথে ক্যান্সারের ঝুঁকি বেড়ে যায়।
  • আলঝেইমার রোগ হল একটি মস্তিষ্কের রোগ যা স্মৃতিশক্তি হ্রাস, বিভ্রান্তি এবং অন্যান্য জ্ঞানীয় সমস্যার কারণ হয়। এটি সবচেয়ে সাধারণ ধরনের ডিমেনশিয়া।
  • মধুমেহ একটি দীর্ঘস্থায়ী রোগ যা শরীরের সঠিকভাবে ইনসুলিন ব্যবহার করতে বাধা দেয়। ইনসুলিন হল একটি হরমোন যা রক্তে শর্করা (গ্লুকোজ) নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে।
  • অস্টিওআর্থারাইটিস হল এক ধরনের গেঁটেবাত যা জয়েন্টগুলিতে উপাস্থির ক্ষয়ের কারণে হয়। উপাস্থি হল একটি নরম, টিস্যু যা হাড়ের প্রান্তগুলিকে কুশন দেয়।
  • ম্যাকুলার ডিজেনারেশন হল একটি চোখের রোগ যা কেন্দ্রীয় দৃষ্টি হ্রাস করে। এটি বয়স্কদের মধ্যে অন্ধত্বের প্রধান কারণ।
  • অস্টিওপরোসিস হল এমন একটি অবস্থা যা হাড়গুলিকে দুর্বল এবং ভেঙে যাওয়ার ঝুঁকিপূর্ণ করে তোলে। এটি মহিলাদের মধ্যে বেশি দেখা যায়।

বার্ধক্য জনিত রোগের অনেক ঝুঁকির কারণ রয়েছে, যার মধ্যে রয়েছে:

  • বয়স: বার্ধক্য জনিত রোগের সবচেয়ে বড় ঝুঁকির কারণ হল বয়স।
  • পারিবারিক ইতিহাস: আপনার যদি বার্ধক্য জনিত রোগে আক্রান্ত পরিবারের সদস্য থাকে তবে আপনার ঝুঁকি বেশি হতে পারে।
  • জীবনধারা: ধূমপান, অস্বাস্থ্যকর খাওয়া এবং ব্যায়ামের অভাব বার্ধক্য জনিত রোগের ঝ

পড়ুনঃম্যাজিক কনডম কিনতে এখনই ক্লিক করুন

আরো পড়ুনঃ দ্রুত চিকন হওয়ার ওষুধ DETOXI SLIM কিনতে এখনই ক্লিক করুন

আরো পড়ুনঃ আ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম/ আ দিয়ে মেয়েদের  ইসলামিক নাম

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “বার্ধক্য জনিত রোগ কি”

Your email address will not be published. Required fields are marked *