মানব সম্পদ উন্নয়নে সরকারের পদক্ষেপ । মানব সম্পদ উন্নয়নের উপাদান

500.00৳ 

সরাসরি কিনতে ফোন করুন: 01622913639</span>

♣ ঢাকার বাহিরে থেকে অর্ডার করতে চাইলে ১৫০ টাকা অগ্রিম ডেলিভারি পরিশোধ করুন ।

<strong>ব্যবহারের সুবিধা;&amp;lt;/strong&gt;&amp;lt;br /&amp;gt;১, আপনার লিঙ্গ মোটা এবং বড় করবে।<br />৩, পূর্বের তুলনায় সময় বাড়াবে এবং সময় দীর্ঘায়িত করবে।
৪, আগের থেকে বেশি সময় স্ত্রী সহবাস করতে পারবেন।
ss=”yoast-text-mark” />>৫, স্ত্রীকে দ্রুত আনন্দ দেওয়া যায় এবং স্ত্রীর অর্গাজম করা সম্ভব।
৬, মেয়েরা পরিপূর্ণ যৌন তৃপ্তি লাভ  লাভ করবে।

742 in stock

Description

মানব সম্পদ উন্নয়নে সরকারের পদক্ষেপ । মানব সম্পদ উন্নয়নের উপাদান

মানব সম্পদ উন্নয়নে সরকারের পদক্ষেপ:

শিক্ষা:

    • প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা:

      • সকলের জন্য বিনামূল্যে ও বাধ্যতামূলক শিক্ষা নিশ্চিতকরণ:
        • ২০১০ সালে, সরকার ‘শিক্ষা ক্ষেত্রের জন্য জাতীয় নীতিমালা’ প্রণয়ন করে, যার লক্ষ্য ছিল সকলের জন্য বিনামূল্যে ও বাধ্যতামূলক শিক্ষা নিশ্চিত করা।
        • এর ফলে, প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরে শিক্ষার্থী ভর্তির হার উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে।
        • ২০১৮ সালে, প্রাথমিক স্তরে শিক্ষার্থী ভর্তির হার ছিল ৯৯.৭% এবং মাধ্যমিক স্তরে ৯৭.৪%।
      • শিক্ষক নিয়োগ ও প্রশিক্ষণ বৃদ্ধি:
        • সরকার নিয়মিতভাবে নতুন শিক্ষক নিয়োগ করছে।
        • শিক্ষকদের প্রশিক্ষণের জন্য বিভিন্ন কর্মসূচি চালু করা হয়েছে।
        • ২০১৮ সালে, প্রাথমিক স্তরে শিক্ষক-ছাত্র অনুপাত ছিল ১:৩৯ এবং মাধ্যমিক স্তরে ১:২৭।
      • শিক্ষা উপকরণ বিতরণ:
        • সরকার প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিনামূল্যে পাঠ্যবই বিতরণ করে।
        • অন্যান্য শিক্ষা উপকরণ, যেমন স্কুল ব্যাগ, খাতা, কলম ইত্যাদিও বিতরণ করা হয়।
      • মিড-ডে মিল প্রদান:
        • সরকার প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের জন্য মিড-ডে মিল প্রদান করে।
        • এটি শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি ও মনোযোগ বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।
      • স্কুলের অবকাঠামো উন্নয়ন:
        • সরকার নিয়মিতভাবে স্কুলের অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য বাজেট বরাদ্দ করে।
        • নতুন স্কুল স্থাপন করা হচ্ছে এবং পুরানো স্কুলগুলি সংস্কার করা হচ্ছে।
  • উচ্চশিক্ষা:
    • সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে শিক্ষার্থী ভর্তি বৃদ্ধি:
      • সরকার নিয়মিতভাবে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে শিক্ষার্থী ভর্তির সংখ্যা বৃদ্ধি করছে।
      • ২০১৮ সালে, সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে শিক্ষার্থী ভর্তির হার ছিল ২৬.৪%।
    • নতুন বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা:
      • সরকার নিয়মিতভাবে নতুন বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করছে।
      • ২০১৮ সালে, বাংলাদেশে ৪৭টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ছিল।
    • ছাত্রবৃত্তি ও আর্থিক সহায়তা প্রদান:
      • সরকার মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য বিভিন্ন छात्रवृत्ति প্রদান করে।
      • আর্থিকভাবে অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়।
    • গবেষণা ও উদ্ভাবনে বিনিয়োগ বৃদ্ধি।

স্বাস্থ্য:

  • প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা:
    • সকলের জন্য বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণ।
    • কমিউনিটি ক্লিনিক প্রতিষ্ঠা।
    • স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগ ও প্রশিক্ষণ বৃদ্ধি।
    • টিকা প্রদান কর্মসূচি।
  • মা ও শিশু স্বাস্থ্য:
    • গর্ভবতী ও স্তন্যদানকারী মায়েদের জন্য পুষ্টি সহায়তা।
    • নবজাতক শিশুদের জন্য টিকা ও স্বাস্থ্যসেবা।
    • শিশুমৃত্যু হ্রাস করার কর্মসূচি।

কর্মসংস্থান:

  • দক্ষতা বৃদ্ধি প্রশিক্ষণ:
    • যুবদের জন্য দক্ষতা বৃদ্ধি প্রশিক্ষণ কর্মসূচি।
    • ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের (SME) উন্নয়ন।
    • বেকারত্ব হ্রাস করার কর্মসূচি।
  • প্রবাসী কর্মী:
    • প্রবাসী কর্মীদের জন্য প্রশিক্ষণ ও কর্মসংস্থানের সুযোগ বৃদ্ধি।
    • প্রবাসীদের আয়ের রেমিট্যান্স বৃদ্ধি।

অন্যান্য পদক্ষেপ:

  • নারীর ক্ষমতায়ন:
    • নারীদের শিক্ষা ও কর্মসংস্থানের সুযোগ বৃদ্ধি।
    • নারীদের জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান।
    • নারীদের বিরুদ্ধে সহিংসতা রোধ করার কর্মসূচি।
  • সামাজিক নিরাপত্তা:
    • দরিদ্র ও অসহায়দের জন্য সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি।
    • বয়স্কদের জন্য পেনশন প্রদান।
    • প্রতিবন্ধীদের জন্য সহায়তা প্রদান।

এই পদক্ষেপগুলির ফলে:

  • বাংলাদেশের মানবসম্পদ উন্নয়ন সূচক (HDI) উন্নত হয়েছে।
  • শিক্ষার হার বৃদ্ধি পেয়েছে।
  • স্বাস্থ্যের মান উন্নত হয়েছে।
  • দারিদ্র্য হ্রাস পেয়েছে।
  • কর্মসংস্থানের সুযোগ বৃদ্ধি পেয়েছে।

তবে এখনও অনেক চ্যালেঞ্জ রয়ে গেছে:

  • শিক্ষার মান উন্নত করতে হবে।
  • স্বাস্থ্যসেবার মান উন্নত করতে হবে।
  • বেকারত্ব হ্রাস করতে হবে।
  • নারীর ক্ষমতায়ন আরও বৃদ্ধ

মানব সম্পদ উন্নয়নের উপাদান

সম্পদ উন্নয়ন হল এমন একটি প্রক্রিয়া যা মানুষের দক্ষতা, জ্ঞান এবং স্বাস্থ্য উন্নত করে। এটি ব্যক্তি এবং সমাজ উভয়ের জন্যই উপকারী হতে পারে। ব্যক্তিগতভাবে, মানব সম্পদ উন্নয়ন উচ্চ আয়ের কাজ, উন্নত জীবনযাত্রার মান এবং বৃহত্তর সন্তুষ্টির দিকে নিয়ে যেতে পারে। সমাজের জন্য, মানব সম্পদ উন্নয়ন অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, দারিদ্র্য হ্রাস এবং উন্নত সামাজিক সূচকের দিকে নিয়ে যেতে পারে।

 সম্পদ উন্নয়নের অনেক উপাদান রয়েছে, তবে এর মধ্যে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ হল:

  • শিক্ষা: শিক্ষা মানুষের জ্ঞান এবং দক্ষতা উন্নত করার একটি প্রধান উপায়। এটি তাদের আরও উত্পাদনশীল কর্মী হতে এবং তাদের সম্পূর্ণ সম্ভাবনায় পৌঁছাতে সহায়তা করতে পারে। প্রাথমিক শিক্ষা থেকে উচ্চশিক্ষা পর্যন্ত সকল স্তরের শিক্ষাই মানব সম্পদ উন্নয়নের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।

  • স্বাস্থ্য: স্বাস্থ্য হল আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান মানব সম্পদ উন্নয়ন। যখন মানুষ সুস্থ থাকে, তখন তারা স্কুলে বা কাজে যেতে এবং সমাজে পূর্ণাঙ্গভাবে অংশগ্রহণ করতে সক্ষম হয়। স্বাস্থ্যসেবা, পুষ্টি এবং স্বাস্থ্যবিধি সহ বিভিন্ন উপায়ে স্বাস্থ্য উন্নত করা যেতে পারে।

  • পুষ্টি: পুষ্টি হল স্বাস্থ্যের একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান এবং মানব সম্পদ উন্নয়ন। যখন মানুষ ভালভাবে পুষ্ট হয়, তখন তারা শেখার এবং কাজ করার জন্য আরও বেশি শক্তি থাকে। তাদের সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করার এবং সুস্থ থাকার সম্ভাবনাও বেশি।

  • অর্থনৈতিক সুযোগ: অর্থনৈতিক সুযোগ মানব সম্পদের একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান উন্নয়ন। যখন মানুষের কাজের সুযোগ থাকে, তখন তারা দক্ষতা অর্জন করতে পারে এবং তাদের জীবনযাত্রার মান উন্নত করতে পারে। এটি তাদের সম্প্রদায় এবং সমাজে অবদান রাখতেও দেয়।

  • সামাজিক সুরক্ষা: সামাজিক সুরক্ষা হল মানব সম্পদ উন্নয়নের একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। যখন মানুষের সামাজিক নিরাপত্তা জাল থাকে, তখন তারা ঝুঁকি নিতে এবং নতুন সুযোগ অন্বেষণ করতে আরও বেশি ইচ্ছুক হয়। এটি তাদের স্কুলে বা কাজে মনোযোগ দিতেও দেয়।

মানব সম্পদ উন্নয়ন একটি জটিল প্র

আরো পড়ুনঃ দ্রুত চিকন হওয়ার ওষুধ DETOXI SLIM কিনতে এখনই ক্লিক করুন

আরো পড়ুনঃ আ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম/ আ দিয়ে মেয়েদের  ইসলামিক নাম

 

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “মানব সম্পদ উন্নয়নে সরকারের পদক্ষেপ । মানব সম্পদ উন্নয়নের উপাদান”

Your email address will not be published. Required fields are marked *