পারমাণবিক শক্তি কিভাবে তৈরি হয়

850.00৳ 

সরাসরি কিনতে ফোন করুন: 01622913639

♣ ঢাকার বাহিরে থেকে অর্ডার করতে চাইলে ১৫০ টাকা অগ্রিম ডেলিভারি পরিশোধ করুন ।

ব্যবহারের সুবিধা;
১, আপনার লিঙ্গ মোটা এবং বড় করবে।
৩, পূর্বের তুলনায় সময় বাড়াবে এবং সময় দীর্ঘায়িত করবে।
৪, আগের থেকে বেশি সময় স্ত্রী সহবাস করতে পারবেন।
৫, স্ত্রীকে দ্রুত আনন্দ দেওয়া যায় এবং স্ত্রীর অর্গাজম করা সম্ভব।
৬, মেয়েরা পরিপূর্ণ যৌন তৃপ্তি লাভ  লাভ করবে।

744 in stock

Description

পারমাণবিক শক্তি কিভাবে তৈরি হয় । পারমাণবিক শক্তি দুটি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তৈরি হয়:

পারমাণবিক শক্তি কিভাবে তৈরি হয়

১. পারমাণবিক বিভাজন (Nuclear Fission):

পড়ুনঃ মোটা হওয়ার ইন্ডিয়ান গুড হেলথ কিনতে এখনই ক্লিক করুন

  • প্রক্রিয়া:
    • একটি ভারী পরমাণু (যেমন ইউরেনিয়াম-২৩৫) কে একটি নিউট্রন দ্বারা আঘাত করা হয়।
    • ভারী পরমাণুটি দুটি ছোট পরমাণুতে বিভক্ত হয়।
    • এই বিভাজনের ফলে বিপুল পরিমাণ তাপ এবং বিকিরণ (নিউট্রন, গামা রশ্মি) তৈরি হয়।
    • উৎপন্ন নিউট্রনগুলি অন্যান্য ইউরেনিয়াম-২৩৫ পরমাণুকে বিভক্ত করতে পারে, যার ফলে একটি চেইন বিক্রিয়া শুরু হয়।
  • ব্যবহার:
    • পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য ব্যবহৃত হয়।
    • বিভাজন থেকে উৎপন্ন তাপ জলকে বাষ্পে পরিণত করে, যা টার্বাইন ঘুরিয়ে বিদ্যুৎ তৈরি করে।
    • বিশ্বে 31 টি দেশে 440 টিরও বেশি পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র রয়েছে।
    • ফ্রান্স তার বিদ্যুতের প্রায় 70% পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে উৎপাদন করে।

উদাহরণ:

  • চেরনোবিল এবং ফুকুশিমা দুটি বিখ্যাত পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র যেখানে দুর্ঘটনা ঘটেছিল।
  • CANDU (Canadian Deuterium Uranium) হল পারমাণবিক রিঅ্যাক্টরের একটি ধরন যা ভারী জল ব্যবহার করে।

২. পারমাণবিক সংযোজন (Nuclear Fusion):

  • প্রক্রিয়া:
    • দুটি হালকা পরমাণু (যেমন ডিউটেরিয়াম এবং ট্রিটিয়াম) একত্রিত হয়ে একটি ভারী পরমাণু (হিলিয়াম) তৈরি করে।
    • এই সংযোজনের ফলে প্রচুর পরিমাণে তাপ (প্রায় 17.6 MeV) এবং বিকিরণ (নিউট্রন) তৈরি হয়।
    • এই প্রক্রিয়াটি সূর্য এবং অন্যান্য নক্ষত্রের শক্তির উৎস।
  • ব্যবহার:
    • এই প্রক্রিয়াটি এখনও বাণিজ্যিকভাবে বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য ব্যবহৃত হয় না।
    • বিজ্ঞানীরা এখনও এই প্রক্রিয়া নিয়ন্ত্রণের উপর গবেষণা করছেন।
    • আন্তর্জাতিক থার্মোনিউক্লিয়ার ফিউশন এক্সপেরিমেন্টাল রিঅ্যাক্টর (ITER) হল একটি গবেষণা প্রকল্প যা 2025 সালে চালু হওয়ার কথা।

পারমাণবিক শক্তির সুবিধা:

  • কার্বন নিরপেক্ষ:
    • পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে বিদ্যুৎ উৎপাদনের সময় গ্রিনহাউস গ্যাস নির্গত হয় না।
  • উচ্চ শক্তি ঘনত্ব:
    • পারমাণবিক জ্বালানীতে প্রচলিত জ্বালানীর তুলনায় অনেক বেশি শক্তি থাকে।
  • নির্ভরযোগ্য:
    • পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলি 24/7 বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে পারে।

পারমাণবিক শক্তির অসুবিধা:

  • দুর্ঘটনার ঝুঁকি:
    • পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে দুর্ঘটনা ঘটলে তা তীব্র তেজস্ক্রিয় দূষণের কারণ হতে পারে।
  • তেজস্ক্রিয় বর্জ্য ব্যবস্থাপনা:
    • পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে উৎপন্ন তেজস্ক্রিয় বর্জ্য নিরাপদভাবে সংরক্ষণ করা একটি বড় চ্যালেঞ্জ।
  • উচ্চ নির্মাণ খরচ:
    • পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের খরচ অনেক বেশি।

পড়ুনঃ দ্রুত চিকন হওয়ার ওষুধ DETOXI SLIM কিনতে এখনই ক্লিক করুন

পরমাণবিক শক্তি একটি বিতর্কিত বিষয়। এর সুবিধা এবং অসুবিধাগুলি সম্পর্কে সচেতন হওয়া গুরুত্বপূর্ণ।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “পারমাণবিক শক্তি কিভাবে তৈরি হয়”

Your email address will not be published. Required fields are marked *